Mostafizur Firoz Mostafizur Firoz Author
Title: মৎস্য অধিদপ্তরে ঢুকতে পারেন ক্ষেত্র সহকারী পদে
Author: Mostafizur Firoz
Rating 5 of 5 Des:
    বাংলাদেশ মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের আওতায় মৎস্য অধিদপ্তর কর্তৃক বাস্তবায়নাধীন ইউনিয়ন পর্যায়ে মৎস্য চাষ প্রযুক্তিসেবা...
. 
 

বাংলাদেশ মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের আওতায় মৎস্য অধিদপ্তর কর্তৃক বাস্তবায়নাধীন ইউনিয়ন পর্যায়ে মৎস্য চাষ প্রযুক্তিসেবা সম্প্রসারণ প্রকল্পের দ্বিতীয় পর্যায়ে প্রকল্প মেয়াদকালীন অর্থাৎ মার্চ ২০১৫ থেকে জুন ২০২০ সাল পর্যন্ত সময়ে সম্পূর্ণ অস্থায়ী ভিত্তিতে ক্ষেত্র সহকারী পদে ৫০০ লোকবল নিয়োগ দেওয়া হবে। ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গেছে আবেদন প্রক্রিয়া, চলবে আগামী ১০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত।

বয়সসীমা: আগামী ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৫ তারিখে যাঁদের বয়স ১৮ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে শুধু তাঁরাই আবেদন করতে পারবেন। বয়স প্রমাণের জন্য জন্ম নিবন্ধন সনদের মূল কপি সাক্ষাতের সময় দেখাতে হবে। তবে বয়স প্রমাণের ক্ষেত্রে কোনো রকম হলফনামা গ্রহণযোগ্য নয়।

শিক্ষাগত যোগ্যতা ও অভিজ্ঞতা: আবেদনকারীকে যেকোনো শিক্ষা বোর্ড থেকে জীববিজ্ঞানসহ বিজ্ঞান বিভাগে উচ্চমাধ্যমিক পাস হতে হবে, তবে মৎস্য বিজ্ঞানে চার বছরের ডিপ্লোমা ডিগ্রিধারীদের অগ্রাধিকার দেওয়া হবে। এ ছাড়া মৎস্য অধিদপ্তরীয় সমাপ্ত প্রকল্পের অভিজ্ঞ প্রার্থীদের বেলায় বয়স শিথিলযোগ্য এবং অগ্রাধিকার দেওয়া হবে, তবে বিভাগীয় প্রার্থীদের বেলায় বয়স ও শিক্ষাগত যোগ্যতা উভয়ই শিথিলযোগ্য।

আবেদনের প্রক্রিয়া: আবেদনকারীকে সরকার নির্ধারিত সরকারি দপ্তরের শূন্যপদে নিয়োগের জন্য ‘চাকরির আবেদনের মডেল ফরম’ অনুযায়ী এক পাতায় পাসপোর্ট সাইজের তিন কপি সত্যায়িত ছবিসহ আবেদন করতে হবে। ফরম পাওয়া যাবে http://www.forms.gov.bd এই ঠিকানায়। এ ছাড়া আবেদনপত্রের নমুনা মৎস্য অধিদপ্তরের ওয়েবসাইট www.fisheries.gov.bd এই ঠিকানায় পাওয়া যাবে। আবেদনপত্রের সঙ্গে প্রার্থীকে এইচএসসি পাসের মার্কশিটও সত্যায়িত করে সংযুক্ত করতে হবে। তবে বর্তমানে চাকরিরত প্রার্থীদের যথাযথ কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে আবেদন করতে হবে।
আবেদনপত্র ডাকযোগে অথবা কুরিয়ার সার্ভিসের মাধ্যমে ১০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে অফিস চলাকালে প্রকল্প পরিচালক, ইউনিয়ন পর্যায়ে মৎস্য চাষ প্রযুক্তি সেবা সম্প্রসারণ প্রকল্প (২য় পর্যায়), মৎস্য অধিদপ্তর, কক্ষ নম্বর-৬১৫, মৎস্য ভবন, ১৩ শহীদ ক্যাপ্টেন মনসুর আলী সরণি, রমনা, ঢাকা-১০০০ এই ঠিকানায় পাঠাতে হবে। আবেদনপত্রের ওপরে অবশ্যই স্পষ্ট করে পদের নাম ও নিজ জেলা উল্লেখ করতে হবে এবং মুক্তিযোদ্ধা ও উপজাতীয় প্রার্থীর ক্ষেত্রে খামের ওপর ‘মুক্তিযোদ্ধা/উপজাতি’ শব্দটি লিখতে হবে। মুক্তিযোদ্ধা ও উপজাতীয় প্রার্থীদের সাক্ষাতের সময়ে জেলা প্রশাসকের নিকট থেকে প্রাপ্ত মূল সনদ প্রদর্শন করতে হবে।

বাছাই পদ্ধতি: প্রাপ্ত আবেদনপত্র যাচাই-বাছাই করার পর শুধু উপযুক্ত বিবেচিত প্রার্থীদের লিখিত পরীক্ষার জন্য ডাকা হবে এবং লিখিত পরীক্ষায় নির্দিষ্ট মানে উত্তীর্ণ প্রার্থীদের মৌখিক পরীক্ষার জন্য ডাকা হবে। পরীক্ষা গ্রহণের স্থান, তারিখ ও সময়সূচি যথাসময়ে প্রাথমিকভাবে নির্বাচিত প্রার্থীদের বর্তমান ঠিকানায় জানিয়ে দেওয়া হবে।

বেতন কাঠামো: চূড়ান্তভাবে নির্বাচিত প্রার্থীরা গ্রেড-১৬ অর্থাৎ মোট সাকল্য বেতন ৪৭০০-৯৭৪৮ টাকা প্রাপ্ত হবে। 
 

About Author

Advertisement

Post a Comment Blogger Disqus

 
Top